Chronic Kidney Disease & Remedies | Women Health due to Kidney Problem | Just Read It

Chronic Kidney Disease & Remedies

Chronic Kidney Disease & Remedies | Women Health due to Kidney Problem | Just Read It:- Chronic Kidney Disease is very harmful, especially for women. Most of the women are unaware of this disease. This mainly happens due to damage to the Kidney. So, whenever one can face some problem, don’t be late. quickly go to the Doctor for more suggestions. In this article, we have provided the causes and effects as well as some remedies for these Diseases.

Chronic Kidney Disease & Remedies:

নিজেদের শারীরিক সমস্যা নিয়ে সচেতন নন মহিলারা। যা কিন্তু কিডনির সমস্যার প্রধান কারণ।

  •  ডায়াবেটিসের সমস্যা থাকলে সেখান থেকে আসতে পারে কিডনির সমস্যা।
  • যে কারণে ডায়াবেটিসের রোগীদের নিয়মিত ভাবে কিডনি পরীক্ষা করার কথা বলা হয়।
  • বর্তমানে কিডনির সমস্যায় ভুক্তভোগীর সংখ্যাও কিন্তু আগের তুলনায় বেড়েছে।
  • খাদ্যাভ্যাসে কোনও রকম শরীরচর্চা না করা এসব কারণেই দিনের পর দিন জটিল হচ্ছে শারীরিক পরিস্থিতি।
  • আগে বয়স্কদের মধ্যেই কিডনির সমস্যা বেশি হত। বর্তমানে কমবয়সীরাও ভুগছে এই সমস্যায়।
  • ন্যাশনাল কিডনি ফাউন্ডেশনের মতে, বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১০ শতাংশ ক্রনিক কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত।
  • প্রতি বছর কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে লক্ষ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়। এর কারণ কিন্তু একটাই চিকিৎসকার অভাব।
  • কিডনির চিকিৎসাও কিন্তু বেশ ব্যায়বহুল। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশগুলিতে এমন অনেক মানুষ আছেন যাঁরা চিকিৎসার ব্যায়ভার বহন করতে পারেন না।
  • ডায়ালিসিস বা কিডনি প্রতিস্থাপনের খরচ অনেকখানি।
(Chronic Kidney Disease & Remedies)

 


সেই খরচ বহন করার ক্ষমতা ভারতের সব পরিবারের থাকে না

কিডনির সমস্যা হলে এবং তা দিনের পর দিন ধরে ফেলে রাখলে সেখান থেকে একাধিক জটিলতা আসতে পারে।

  • ক্রনিক কিডনির সমস্যায় ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা অনেক বেশি ভোগেন।
  • আর সময়মত চিকিৎসা না হলে পরিস্থিতি হাতের নাগালের বাইরে চলে যায়।
  • কিডনির সমস্যা হলেও অনেক মহিলা প্রথম থেকে তাতে আমল দেন না। ফলে সেখান থেকে জটিলতা তৈরি হয় পরবর্তীতে।

 

যাঁদের জীবনযাত্রা অনিয়ন্ত্রিত

তাঁদের এইসমস্যা হতে পারে তেমনই পারিবারিক ইতিহাসে কিডনির সমস্যা রয়েছে এমন মানুষও কিন্তু আক্রান্ত হতে পারেন ক্রনিক কিডনির রোগে।

  • কিডনির সমস্যা থাকলে উচ্চরক্তচাপের সমস্যা আসে, সেই সঙ্গে আসে হার্টের সমস্যাও। কেন মহিলাদের মধ্যে ক্রনিক কিডনি
    (Chronic Kidney Disease & Remedies)

 


তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতেই এই সমস্যা সবচেয়ে বেশি

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, তুলনায় মহিলারা এই সমস্যায় অনেক বেশি আক্রান্ত। এর প্রধান কারণ কিন্তু সচেতনতার অভাব ।

  • কোমরের ব্যথা, ইউরিন ইনফেকশনের সমস্যা অধিকাংশ মহিলার খুব সাধারণ সমস্যা। আর এখানেই গলদ।
  • বেশিরভাগই এই সব উপসর্গ অবহেলা করেন। যেখান থেকে পরবর্তীতে জটিলতা বাড়ে।
  • এছাড়াও মহিলারা অটোইমিউন ডিজিজ বা লুপাসের সমস্যায় বেশি ভোগেন।
  • এর অর্থ হল শরীরের বিভিন্ন কোষ নিজে থেকেই অন্যান্য অঙ্গকে আক্রমণ করে। যে কারণে জয়েন্ট পেন হয়।
  • শরীরের বিভিন্ন অংশের প্রদাহ, ত্বক, কিডনি, মস্তিষ্ক, হার্ট, ফুসফুসের সংক্রমণের কারণ কিন্তু এই লুপাস।
  • এই কারণেও কিডনির সমস্যা হয়।

প্রাথমিক উপসর্গ

কিডনির সমস্যার প্রাথমিক কিছু উপসর্গ থাকে।

  • কিন্তু যতক্ষণ পর্যন্ত না তা প্রকট হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত কিছুই ধরা পড়ে না।
  • ক্লান্তি, দুর্বলতা, খিদেমন্দা, পা ফোলা, চোখের চারপাশে ফোলা ভাব-এসব কিন্তু কিডনির সমস্যার প্রাথমিক লক্ষণ।
  • যাঁদের এই সমস্যা দু দিনের বেশি থাকে, তাঁদের কিন্তু অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।
  • কিডনির সমস্যায় প্রথম থেকে সতর্ক না হলেই প্রকট হবে কিডনি ফেলিওয়ের সম্ভাবনা।
(Chronic Kidney Disease & Remedies)

 


কীভাবে পরীক্ষা করবেন:-

বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে কিডনির রোগ নির্ণয় করা হয়। ইউরিন টেস্টের মাধ্যমে দেখে নেওয়া হয় অ্যালবুমিন প্রোটিনের পরিমাণ।

  • এই প্রোটিন অত্যধিক পরিমাণে থাকলেই কিডনির ক্ষতি হয়। দ্বিতীয় পরীক্ষা হল ক্রিয়েটিনিনের।
  • যদি ক্রিয়েটিনিনের পরিমাণ বেশি থাকে তাহলে তাও কিন্তু কিডনির সমস্যার ইঙ্গিত দেয়।
  • কোমর্বিডিটি থাকা রোগীদের উপরই অতিমারির প্রকোপ সবথেকে বেশি দেখা গিয়েছে।
  • বিশেষ করে কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত যাঁরা, তাঁদের নিয়েই বিশেষ ভাবে উদ্বিগ্ন ছিলেন চিকিৎসকেরা।
  • তাই ক্রনিক কিডনি ডিজিজ নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোর সময় এসেছে বলে মনে করছেন চিকিৎসকেরা।
  • মূলত আফ্রিকা, মার্কিন এবং এশীয়-মার্কিন নাগরিকদের মধ্যে এই রোগ বেশি দেখা গেলেও, ভারতীয় উপমহাদেশেও বাড়ছে ক্রনিক কিডনি ডিজিজ।

 

এর পরিনতি কি হতে পারে:-

এই রোগে ধীরে ধীরে কার্যক্ষমতা হারায় কিডনি।

  • রক্তের অতিরিক্ত তরল এবং শরীরে বর্জ্য প্রস্রাবের মাধ্যমে বার করে দেয় কিডনি।
  • তাই কিডনি অকেজো হয়ে পড়লে শরীরে বর্জ্য জমা হতে থাকে। তা থেকে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়া থেকে মৃত্যুও হতে পারে
  • প্রাথমিক পর্যায়ে কিডনির কার্যক্ষমতা ৩৫ থেকে ৪০ শতাংশ কমে গেলে তেমন সমস্যা অনুভূত হয় না।
  • কিন্তু মুখ যদি আচমকা ফোলা লাগে, তাহলে বুঝতে হবে সমস্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।
  • কিডনির কার্যক্ষমতা ৬৫ থেকে ৮০ শতাংশ কমে গেলে রক্তে ক্রিয়েটিনিন এবং ইউরিয়ার মাত্রা বৃদ্ধি পায়।
  • এ ক্ষেত্রে শারীরিক দুর্বলতা, রক্তাল্পতা, উচ্চ রক্তচাপ, বিশেষ করে রাতের দিকে প্রস্রাবের মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার মতো লক্ষণ দেখা যায়।
  • ক্রনিক কিডনি ডিজিজের ক্ষেত্রে কিডনির কার্যক্ষমতা ৮০ শতাংশই কমে যায়।
  • সে ক্ষেত্রে কিডনি ফেলিওরের সম্ভাবনা বাড়তে থাকে। ওষুধ খেয়েও অনেক সময় যন্ত্রণার উপশম হয় না।
(Chronic Kidney Disease & Remedies)

ক্রনিক কিডনি ডিজিজের লক্ষণ:-

খাবারে অরুচি, বমিভাব, দুর্বলতা, হঠাৎ করে ওজন কমে যাওয়া, শ্বাসকষ্ট, ঘুমের চক্রে বদল, স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়া,

  • পেশির যন্ত্রণা, বার বার প্রস্রাব পাওয়া, ত্বক শুষ্ক হয়ে যাওয়া, চুলকানির সমস্যা, রক্ত ফ্যাকাসে হয়ে যাওয়া, পা
  • এবং গোড়ালি ফুলে যাওয়া, উচ্চ রক্তচাপ, বুক ব্যথা ইত্যাদি ক্রনিক কিডনি ডিজিজের লক্ষণ।
  • টাইপ ১ এবং টাইপ ২ ডায়বিটিস থেকে কিডনির সমস্যা হয়।
  • এ ছাড়াও জিনগত কিডনির রোগ থাকলে, দীর্ঘ ক্ষণ প্রস্রাব চেপে রাখার অভ্যাস, কিডনির সংক্রমণ থেকে রোগ গুরুতর হতে পারে।

নিরাময়ের জন্য গৃহীত উপায় সমূহ:-

শুরুতেই ক্রনিক কিডনি ডিজিজের লক্ষণ দেখে সন্দেহ হলে তৎক্ষণাৎ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

  • শরীরে এমন কোনও রোগ থাকলে, যা থেকে পরবর্তী কালে কিডনির সমস্যা হতে পারে, আগে থাকতে সাবধানতা অবলম্বন করুন।
  • প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করিয়ে নিন।
  • ওষুধ এবং চিকিৎসা সত্ত্বেও যদি রক্তের ফ্যাকাসে ভাব দূর না হয়, সে ক্ষেত্রে কিডনি ফেলিওরের সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

Healthy Lifestyles and Chronic Disease Prevention

Read More:- Best 60 Current Affairs | Daily Current Affairs for 10th May 2022 | Most recent Updates

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles